শিরোনাম:

ওজন কমিয়ে ছয় বছর পর নিজ পায়ে দাঁড়ালো যুবক!

৫০০ কেজি থেকে ২৭৭ কেজি কমিয়ে নিজ পায়ে দাঁড়াতে ক্ষম হয়েছেন সবচেয়ে বেশি ওজনের সৌদি লোকটি।

তার নাম মানসুর আল শারারির। দীর্ঘ ছয় বছর পর নিজ পায়ে দাঁড়াতে আনন্দের সীমা নেই তার।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দীর্ঘ চিকিৎসার পর হাঁটতে পেরে যেন নতুন জীবন শুরু করলেন এ তরুণ।

সৌদি সংবাদ মাধ্যম আল আরাবিয়াকে আল শারারি নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ‘দেহের ওজন অত্যাধিক বেড়ে যাওয়ায় গত ছয় বছর যাবত আমি অনেক সমস্যায় ভুগছিলাম। আমার ওজন প্রায় পাঁচ শ কেজিতে গিয়ে পৌঁছে। গত জিলহজ মাসে আমাকে বিমানে করে রিয়াদের আল জাওফ এলাকার হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়।’

আল শারারি বলেন, ‘প্রয়োজনীয় মেডিকেল পরীক্ষার পর কিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউনিভার্সিটির মেডিকেল বিভাগে আমার চিকিৎসা করা হয়। দীর্ঘ পরিক্রমার পর বর্তমানে আমার ওজন ২২৭ কেজি। এখনও আমি প্রয়োজনীয় চিকিৎসা গ্রহণ করছি। দীর্ঘ ছয় বছর পর নিজ পায়ে দাঁড়ানোর অনুভূতি ভাষায় প্রকাশের মতো নয়।’

এদিকে কিং সাউদ ইউনিভার্সিটির প্রধান ড. বাদরান আল উমর এক টুইটবার্তায় আল শারারির সফল অপারেশন সম্পন্ন করে সুস্থতার কথা নিশ্চিত করেন। তিনিই তার স্থূলকায় দেহের ওজন কমাতে অপারেশন করেছিলেন। তিনি বলেন, ‌‘তিন মাস আগে থেরাপি, খেলাধুলা ও ডায়েটের মাধ্যমে তার চিকিৎসা শুরু করি। এক মাস আগে তার অপারেশন করা হয়।’

সৌদির সোসাইটি ফর ল্যাপারোস্কোপিক সার্জারির প্রধান ডা. আবদুল্লাহ আল দাহয়ান এক টুইটবার্তায় বলেন, দীর্ঘ ছয় বছর পর মানসুর আল শারারি হাঁটতে শুরু করেছেন। ৬০ জনের বেশি চিকিৎসক, নার্স ও টেকনিশিয়ানের দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর এখন তিনি নিজ পরিবারের কাছে ফিরে যাবেন।’