কিশোরী ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ, ২ কিশোর গ্রেপ্তার

ফরিদপুরের সালথায় ১৫ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে ১৫ বছর ও ১৪ বছরের দুই কিশোরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার রাতে উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়ন থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এ বিষয়ে সালথা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, কিশোরী ধর্ষণ মামলার আসামি ৩ কিশোর ওই কিশোরীকে আগে থেকেই কুপ্রস্তাব দেয়। তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গত ১৫ অক্টোবর সকাল ১০টায় বাড়ির সামনে মাঠে শ্যালো মেশিনের টিনের ঘরের মধ্যে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

পলাতক অন্য আসামি মোবাইলে সেই ভিডিও ধারণ করে। বিষয়টি কাউকে বললে ভিডিও ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখায় আসামিরা। ভিডিওর ভয়ে মেয়েটি তার পরিবারের কাছে মূখ খোলেনি।

কিন্ত ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে ঘটনার সম্পর্কে জানতে পারেন ওই কিশোরীর বাবা। বিষয়টি স্থানীয় মাতব্বররা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু ওই কিশোরীর বাবা মিমাংসা না করে বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযান চালিয়ে দুই কিশোরকে আটক করে।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ বলেন, ধর্ষণের খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনার সাথে জড়িত দুই কিশোরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সাথে ভিডিও ধারণকৃত মোবাইলটি জব্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে সালথা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।