শিরোনাম:

নারীর মুঠোফোন চুরির পর উত্ত্যক্ত, ছাত্রলীগের নেতা কারাগারে

ফেনীর পরশুরামে প্রতিবেশী এক নারীর মুঠোফোন চুরি ও সেই ফোন দিয়েই ওই নারীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের এক নেতার বিরুদ্ধে। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের সহায়তায় তাকে আটক করে শুক্রবার রাতে পুলিশে দেন এলাকাবাসী। শনিবার (১ মে) তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

অভিযুক্ত ওই ছাত্রলীগ নেতার নাম এনায়েত হোসেন ওরফে আকাশ (২১)। তিনি উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক ও পশ্চিম মির্জানগর গ্রামের মৃত আলমগীর হোসেনের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, এনায়েত হোসেন কয়েক দিন আগে রাতের বেলায় প্রতিবেশী এক নারীর মুঠোফোন চুরি করে নিয়ে যান। পরে সেই মুঠোফোন দিয়ে ওই নারীকে উত্ত্যক্ত করতে শুরু করেন। একপর্যায়ে ওই নারী স্থানীয় লোকজনকে বিষয়টি অবহিত করেন। শুক্রবার রাতে মির্জানগর ইউপির চেয়ারম্যান নুরুজ্জমান ভুট্টোর সহযোগিতায় এলাকার লোকজন এনায়েতকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।

ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জমান ভুট্টো ছাত্রলীগের নেতা এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে আইনগত ও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের অনুরোধ করেছেন তিনি।

পরশুরাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শওকত হোসেন বলেন, এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে আগেও চুরির কয়েকটি মামলা রয়েছে। শনিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।