শিরোনাম:

পানিতে ডুবে দুই জেলায় ৪ শিশুর মৃত্যু

কিশোরগঞ্জ ও বরিশালে পানিতে ডুবে চার শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রোববার (২৫ জুলাই) বিকেলে এসব ঘটনা ঘটে।

মৃত শিশুরা হলো- কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বৌলাই ইউনিয়নের ছয়না গ্রামের সোহরাফ মিয়ার ছেলে সানাতুল্লাহ (২), একই গ্রামের শাহজাহান মিয়ার মেয়ে মোফাসসিরা (১৭ মাস), ঝালকাঠীর রাজাপুর উপজেলার মোহাম্মদ রাব্বির ছেলে আয়মান (৪) ও হিজলা উপজেলার খুন্না গৌবিন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা কামাল তফাদারের ছেলে মো. ইব্রাহিম (৩)।

কিশোরগঞ্জ: বিকেলে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বৌলাই ইউনিয়নের ছয়না গ্রামে ডোবার পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তারা চাচাতো ভাইবোন।

বৌলাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আওলাদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, শিশু দুটি বাড়ির পাশে খেলা করছিল। এক পর্যায়ে তারা নিখোঁজ হয়। পরে বাড়ির পাশের একটি ডোবায় দুই শিশুকে ভাসতে দেখেন স্থানীয়রা। তাদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বরিশাল : বিকেলে বরিশালের উজিরপুর ও হিজলা উপজেলায় পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে উজিরপুর উপজেলায় পানিতে ডুবে আয়মান ও হিজলা উপজেলায় মো. ইব্রাহিমের মৃত্যু হয়।

আয়মানের স্বজনরা জানান, আয়মান বাবা-মায়ের সঙ্গে নানা বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল। বিকেল ৪টা থেকে আয়মানকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। আয়মানকে না পেয়ে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে তাকে বাড়ির পাশে খালে ভাসতে দেখে পরিবারের লোকজন। তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. হুমায়ুন মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. হুমায়ুন জানান, আয়মানকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। তখন আর কিছু করার ছিল না।

ইব্রাহিমের স্বজনরা জানান, বাড়ির উঠানে ইব্রাহিম অন্য শিশুদের সঙ্গে খেলছিল। এ সময় সবার অগোচরে ইব্রাহিম বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে পড়ে ডুবে যায়। তাকে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। বাড়ির পাশের পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় অচেতন ইব্রাহিমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হিজলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. শাহারাজ হায়াত জানান, হাসপাতালে আনার আগেই শিশুটি মারা গেছে।