শিরোনাম:

বিশ্বের প্রথম ‘উড়ন্ত জাদুঘর’ চালু করতে যাচ্ছে সৌদি আরব

বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) প্রত্নতাত্ত্বিক শহর আল উলায় তা উদ্বোধন হবে। উড়ন্ত জাদুঘরে আল উলা শহরে খনন করে সংগৃহীত প্রত্নতত্ত্বের নমুনালিপি দর্শকরা দেখতে পারবে। সৌদি সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ এ তথ্য জানায়।

আরব নিউজের খবর থেকে জানা যায়, সৌদির অন্যতম প্রাচীন আল উলা শহরের সংগৃহীত শিল্পকর্মের অনুলিপি জাদুঘরে প্রদর্শিত হবে। অত্যাধুনিক এ প্রকল্প বাস্তবায়নে রয়েল কমিশন ফর আল উলা ও দ্য ন্যাশনাল ফ্ল্যাগ ক্যারিয়ার সাউদিয়ার যৌথ সহায়তায় প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলো দর্শকরা দেখতে পাবেন।

মিশনের প্রত্নতত্ত্ব ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য গবেষণা বিভাগের পরিচালক রেবেকা ফুট জানান, এ ডকুমেন্টারির মাধ্যমে শিল্পকর্ম সম্পর্কে একটি ভূমিকা প্রদান করবেন। তিনি বলেন, ‘আল উলা শহরে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রত্নতাত্ত্বিকরা কাজ করছেন। এখন আমরা শুধু এখানকার অতীতের জটিল প্রকৃতি বোঝার চেষ্টা করছি। আল উলা আরব উপদ্বীপে লুকিয়ে থাকা রত্নতুল্য শহর। ধীরে ধীরে আমরা এর রহস্য উন্মোচন করছি। উড়ন্ত জাদুঘরে আকাশযাত্রীদের সঙ্গে আমাদের কাজ সম্পর্কে আরো বেশি জানাব।’

কমিশনের প্রধান ডিস্টিনেশন কর্মকর্তা ফিলিপি জোনস বলেন, ‘জাদুঘরটি আল উলা শহরের প্রত্নতাত্ত্বিক কাজের গুরুত্ব তুলে ধরবে। এটিই বর্তমান বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রত্নতাত্ত্বিক প্রোগ্রাম বলে মন করছে সংশ্লিষ্ট কমিশন। শহরের নতুন ইতিহাস সম্পর্কে জানতে আগ্রহী পর্যটক ও দর্শনার্থীরা শহর পরিদর্শনে এলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ তাদের অভিনন্দ জানাবে।’

আল উলা শহরে আগত দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যটকদের জন্য বার্ষিক ও মৌসুমি নানা ধরনের সেবা প্রদান করছে। এর মাধ্যমে উড়ন্ত জাদুঘরের যাত্রীরা মাসা আল হিজর শহর পরিদর্শনে প্রথমবার টিকিট বুকিংয়ের সুযোগ পাবেন।