শিরোনাম:

বৃষ্টি বর্ষণ হলে প্রভুকে বেশি বেশি স্মরণের শিক্ষাও দিয়েছেন বিশ্বনবী (সাঃ)

বৃষ্টির প্রতিটি ফোঁটা বর্ষিত হয় আল্লাহ তাআলার রহমতের ধারা হয়ে। বৃষ্টি হলে প্রভুকে বেশি বেশি স্মরণের শিক্ষাও দিয়েছেন বিশ্বনবী (সাঃ)।

বিশ্বনবীর (সাঃ) জীবন থেকে জানতে পারি, তিনি বৃষ্টিকে খুব ভালোভাবেই উপভোগ করতেন। প্রখ্যাত সাহাবি হজরত আনাস (রাঃ) বলেন, ‘আমরা মহানবীর (সাঃ) সঙ্গে থাকাকালে একবার বৃষ্টি নামল।

রাসুলুল্লাহ (সাঃ) তখন তার কাপড় প্রসারিত করলেন যাতে পানি তাকে স্পর্শ করতে পারে। আমরা বললাম, হে আল্লাহর রাসুল! আপনি কেন এমন করলেন? তিনি বললেন, কারণ বৃষ্টি তার মহান রবের কাছ থেকে এই মাত্রই এসেছে।’ (মুসলিম)

হাদিসে এসেছে হজরত মা আয়েশা (রাঃ) বলেন, মহানবী (সাঃ) বৃষ্টি নামতে দেখলে বলতেন, ‘আল্লাহুম্মা সাইয়িবান নাফিয়া’ অর্থাৎ হে আল্লাহ, উপকারী বৃষ্টি আমাদের ওপর বর্ষণ করুন।’

আবু দাউদের বর্ণনায় রয়েছে, মহানবী (সাঃ) বলেছেন, বৃষ্টির সময় করা দোয়া ফিরিয়ে দেওয়া হয় না।’

আমরা মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করতে পারি যে, হে আল্লাহ! তোমার রহমতের বৃষ্টির মাধ্যমে আমাদের দেশ থেকে করোনাভাইরাসকে ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করে দাও, বিশুদ্ধ করে দাও বাংলার আকাশ-বাতাস, গোটা বিশ্বকে প্রশান্তিময় করে তুলো।