ভারতে নয়া আতঙ্কের নাম করোনার ‘ডেল্টা প্লাস’

ভারতে বর্তমানে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণের গ্রাফ কিছুটা হলেও নিম্নমুখী। এ অবস্থায় করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কায় তটস্থ ভারতের বিশেষজ্ঞ মহল। তবে তার আগে ভারতে এখন আতঙ্কের নাম করোনার ‘ডেল্টা প্লাস’ ধরন।

এরই মধ্যে ‘ডেল্টা প্লাস’ ভারতের তিন রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। মধ্যপ্রদেশ, কেরালা ও মহারাষ্ট্রে বেশ কয়েকজনের শরীরে ‘ডেল্টা প্লাস’ ধরনের সন্ধান পাওয়া গেছে।

গত ১৬ জুন মধ্যপ্রদেশে করোনার সবচেয়ে শক্তিশালী ডেল্টা প্লাস ধরনে প্রথম আক্রান্তের হদিস মেলে। এরপর কেরালায় তিনজন ও মহারাষ্ট্রে ২১ জনের শরীরে ডেল্টা প্লাস শনাক্ত হয়।

ডেল্টা প্লাস নিয়ে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এই ধরনের সংক্রমণে করোনার চেনা উপসর্গ দেখা যাচ্ছে না মানব শরীরে। মূলত সংক্রমণের উপসর্গ জানতে না পারায় উদ্বিগ্ন ভারতের চিকিৎসকমহল।

এদিকে ভারতে করোনার ডেল্টা প্লাস ধরনের খোঁজ পাওয়ার পরেই অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সের (এইমস) অধিকর্তা রণদীপ গুলেরিয়া জানিয়েছেন, আগামী ছয় থেকে আট সপ্তাহের মধ্যেই করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে ভারতে।

রণদীপ গুলেরিয়া বলেন, ‘ভারতে করোনার দ্বিতীয় সংক্রমণ কিছুটা নিম্নমুখী হওয়ার ফলে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে এরই মধ্যে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। ফলে গণপরিবহণ, বাজার, শপিংমল, অফিসে ভিড় জমতে শুরু করেছে। এখন ফের বাড়তে পারে করোনার সংক্রমণ। আর এসবের কারণেই ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ের তুলনায় ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে।