ভাসানচরে প্রথম রোহিঙ্গা শিশুর জন্ম

ভাসানচরে আশ্রয় নেওয়া মো. কাশেম ও রাবেয়া খাতুনের ঘরে এলো তৃতীয় সন্তান। আর ভাসানচরে জন্ম নিলো প্রথম রোহিঙ্গা শিশু।

শুক্রবার কাশেম বলেন, ‘আমি খুবই খুশি। মা ও ছেলে দুজনই সুস্থ আছে। ছেলের ওজন হয়েছে সাত পাউন্ড। আমার মা ছেলের নাম রাখবেন।’

মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার হয়ে ২০১৭ সালে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন কাশেম ও রাবেয়া। গত ৪ ডিসেম্বর তাদের নোয়াখালীর ভাসানচরে নেওয়া হয়।

কাশেম ও রাবেয়ার প্রথম সন্তানের জন্ম হয় মিয়ানমারে। দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম হয় কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পে।

ভাসানচর প্রকল্পের (আশ্রয়ণ প্রকল্প-৩) পরিচালক কমোডর এএ মামুন চৌধুরী দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘এটি আসলে চমৎকার অনুভূতি, বিজয়ের মাসে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের আমরা কক্সবাজার থেকে ভাসানচরে স্থানান্তর করতে পেরেছি। নতুন শিশুর জন্মের বিষয়টি আরও আনন্দের। এখনো শিশুটির নাম রাখা হয়নি।’