শিরোনাম:

মাঠ নিয়ে ক্ষুব্ধ ব্রাজিল কোচ

কোপা আমেরিকায় বৃহস্পতিবার টানা তৃতীয় ম্যাচ জিতেছে ব্রাজিল। কিন্তু ভেনেজুয়েলা ও পেরুর মতো কলম্বিয়া সহজে ছেড়ে দেয়নি তাদের। প্রথম দুই ম্যাচে সাত গোল করা ব্রাজিল কলম্বিয়ার সঙ্গে পয়েন্ট হারাতে বসেছিল। শেষ পর্যন্ত ইনজুরি টাইমের দশম মিনিটে কাসেমিরোর হেড তিন পয়েন্ট এনে দেয় তাদের। বিতর্কিত ম্যাচে ২-১ গোলের কষ্টার্জিত জয়ের পর রিও ডি জেনেইরোর এস্তাদিও নিল্তন সান্তোসের মাঠকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বললেন কোচ তিতে।

লুইস দিয়াজের চমৎকার ভলিতে কলম্বিয়া দশম মিনিটে লিড নেয়। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল দ্বিতীয়ার্ধের আগে কোনও সুযোগই তৈরি করতে পারেনি। বদলি নেমে রবার্তো ফিরমিনো নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার ১২ মিনিট আগে সমতা ফেরান।

৭৮তম মিনিটে সমতাসূচক গোল বিল্ডআপের সময় রেফারি নেস্তর পিতানার গায়ে লাগে। তারপরও ড্রপ বলের সিদ্ধান্ত না দিয়ে খেলা চালিয়ে যান তিনি। এই ঘটনায় কলম্বিয়া বেশ কিছুক্ষণ ধরে প্রতিবাদ জানায়। তাই ইনজুরি টাইমও বেড়ে যায়, যা কাজে লাগিয়ে কাসেমিরো ১০০তম মিনিটে জয়সূচক গোল করেন।

ম্যাচ শেষে মাঠকে দুষলেন তিতে। তার দাবি, এটি পুরো খেলার সৌন্দর্যকে নষ্ট করেছে। এমনকি তার দলের জন্য খেলা কঠিন হয়ে পড়েছিল।

তিতে বলেছেন, ‘এই মাঠকে আমি ভয়ঙ্কর বলবো না, কিন্তু ফুটবল খেলার জন্য খুব খারাপ ছিল। খেলার সৌন্দর্যকে নষ্ট করে দিয়েছে এটি। কেউ চাইলেও সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না। দুই উচ্চপর্যায়ের দলের খেলোয়াড়দের জন্য এটি ছিল অগ্রহণযোগ্য, যারা ইউরো সেরা মানের খেলা খেলে।’

ব্রাজিল কোচ আরও যোগ করেছেন, ‘বলও ছিড়ে গিয়েছিল। খেলার ছন্দ নষ্ট হয়ে যাচ্ছিল। ব্রাজিলের সব খেলোয়াড়দের জিজ্ঞাসা করলে তারাও একই মন্তব্য করবে। দারুণ খেলা খেলতে হলে কন্ডিশনও ভালো থাকতে হবে। আমি এটা পরিষ্কার করে বলতে চাই।’

টানা ছয় ম্যাচ ক্লিনশিট রাখার পর গোল খেলো ব্রাজিল। তিতে এ নিয়ে বললেন, ‘কলম্বিয়ার বিপক্ষে এই খেলায় চিরায়ত ব্রাজিলকে দেখা যায়নি। সব ম্যাচ ছিল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। আমরা চাপের মধ্যে খেললাম। এভাবে খেলা কঠিন, দ্রুত ছন্দে ফিরতে চাইলেও তা হচ্ছিল না।’