মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে বিশ্বে তলানিতে বাংলাদেশ

মোবাইল ডাটার গতিতে শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ দিয়ে গ্রাহক টানার লক্ষ্য দেশের মোবাইল অপারেটরগুলোর। এ সব প্রচারণা দেশের ভেতরে নিজেদের অবস্থানকে তুলে ধরলেও; বাস্তব পরিস্থিতি হলো, মোবাইলে ইন্টারনেটের গতিতে ১৩৮টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৩তম।

মোবাইল ডাটার গতি পরীক্ষায় আন্তর্জাতিক জরিপ অনুযায়ী বৈশ্বিক বিবেচনায় বাংলাদেশের অবস্থান তলানীতে।

বিশ্বের ইন্টারনেট গতি নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ওকলাস স্পিডটেস্ট গ্লোবাল ইনডেক্সের সবশেষ সেপ্টেম্বর মাসের তথ্য বলছে, ১৩৮টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৩। যেখানে বিশ্বে মোবাইল ডাটার গড় গতি ছিলো প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ৩৫ মেগাবাইট, সেখানে দেশে সেই গতি মাত্র ১১ মেগাবাইট। আর দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের নিচে আছে শুধু আফগানিস্তান।

মোবাইল অপারেটরদের সংগঠন অ্যামটব বলছে, গতির এ দশায় এককভাবে অপারেটরগুলোকে দায়ী করা যাবে না।
এ জন্য উচ্চমূল্যের তরঙ্গ, টাওয়ারের অপ্রতুলতাসহ নানা সমস্যার কথা বলছেন অপারেটররা।

মোবাইল ডাটার এমন গতিতে অনেকটাই অসহায়ত্বের সুর সরকারের কণ্ঠে।

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির তথ্য অনুযায়ী, দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ১১ কোটির বেশি। যার মধ্যে ১০ কোটিরও বেশি মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।