সৌরভকে দেখার পর যা বললেন দেবী শেঠি

সৌরভ গাঙ্গুলীকে দেখতে মঙ্গলবার ব্যাঙ্গালুরু থেকে কলকাতায় ছুটে যান উপমহাদেশের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবী শেঠি। অসুস্থ সৌরভকে দেখে তিনি বললেন, একদম ফিট আছেন সৌরভ। তার হার্টের অবস্থা খুব ভালো আছে। বুধবারই তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হবে। তারপর দুই থেকে তিন সপ্তাহ বিশ্রাম নিয়ে তিনি আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবেন। পুরোদমে কাজ শুরু করতে পারবেন– এমনকি চাইলে ক্রিকেটও খেলতে পারবেন।

মঙ্গলবার উডল্যান্ডস হাসপাতালে সৌরভ গাঙ্গুলীকে দেখে এমন মন্তব্য করেন কার্ডিয়াক সার্জন দেবী শেঠি।

এর আগে সোমবার ভিডিও কনফারেন্সে সৌরভের মেডিকেল বোর্ডের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন দেবী শেঠি। আজ সৌরভকে দেখে দেবী বলেন, সৌরভ কলকাতায় যে চিকিত্সা পেয়েছেন তা মানসম্মত।

এদিকে হাসপাতাল জানিয়েছে, অনেকটাই সুস্থ সৌরভ। রাতে ভালো ঘুম হয়েছে। সকালে হালকা খাবার খেয়েছেন।

জানা গেছে, সৌরভের ডান দিকের ধমনীতে একটি স্টেন্ট বসানো হয়েছে। কিন্তু তার বাঁ দিকের ধমনীতেও দুটি ব্লকেজ রয়েছে। কোনো রকম ঝুঁকি না নিয়ে আরও দুটি স্টেন্ট বসানো হবে।

সে কারণে তাকে আবারও হাসপাতালে আসতে হবে। সৌরভের জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সদস্য হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ সরোজ মণ্ডল বলেন, ‘দেশ ও বিদেশের হৃদরোগ চিকিৎসকদের সঙ্গে আলোচনা করে যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, সৌরভের অন্য দুটি ধমনীতে এনজিওপ্লাস্টিই করতে হবে, বাইপাস নয়। তবে সেটি কবে করা হবে, এখনই তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।’

শনিবার সকালে নিজ বাড়িতে শরীরচর্চার সময় সৌরভ বুকে ব্যথা অনুভব করেন। একপর্যায়ে তিনি অজ্ঞানও হয়ে যান। এর পর তাকে নেয়া হয় কলকাতার বেসরকারি উডল্যান্ডস হাসপাতালে। সেখানে তাকে রাখা হয়েছে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে। তাকে পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানতে পারেন, তার হৃদযন্ত্রে তিনটি ব্লকেজ রয়েছে। এর পরেই শনিবার একটিতে স্টেন্ট লাগানো হয়।