স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ‘লজ্জা-শরম নেই’, পদত্যাগ দাবি সংসদে

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় সংসদে বিরোধী দলের সদস্যরা সাতক্ষীরা ও বগুড়ায় অক্সিজেনের অভাবে মানুষ মারা যাওয়ার ঘটনায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা করেন ।

বাজেট অধিবেশনের সমাপনী দিনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে সদস্যরা মন্ত্রী ও মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা করেন। এ সময় স্পিকার শিরীন শারমীন চৌধুরী অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন। সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সময় সংসদে উপস্থিত ছিলেন। তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধিবেশনকক্ষে ছিলন না।

অক্সিজেন সংকটের কথা প্রথম তোলেন বগুড়ার বিএনপির সদস্য জি এম সিরাজ। তিনি বলেন, অক্সিজেনের অভাবে বগুড়ায় ২ দিনে ২৪ জন মারা গেছেন।

মো হারুনুর রশীদ বলেন, বুধবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী সংসদে যে বক্তব্য দিয়েছেন, এর মাধ্যমে গোটা হাউসকে অপমান করা হয়েছে। মন্ত্রী বলেছিলেন যে সংসদ সদস্যরা জেলা হাসপাতালের চেয়ারম্যান। তাঁরা দায়িত্ব পালন করেন না। মন্ত্রীর এই বক্তব্য ঠিক নয়। এই বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করা দরকার।

হারুন বলেন, সংসদে ৯০ ভাগ সদস্য সরকারি দলের। তাহলে কি সরকারি দলের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন না?

তিনি বলেন, আগামী ১০-১৫ দিনের মধ্যে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। অক্সিজেন সংকট দেখা দিয়েছে।

মুজিবুল হক চুন্নু স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে বলেন, উনি যে কী মানুষ? লজ্জা-শরম নেই। তিনি এক দিনও কোনো হাসপাতালের ভেতরে গিয়ে দেখেননি কী হচ্ছে? তিনি শুধু জুম মিটিং করেন। ৩৭টি জেলায় অক্সিজেন নেই। মানুষ মারা যাচ্ছে।

কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, সাতক্ষীরায় অক্সিজেনের অভাবে এক ঘণ্টায় ৭জন ছটফট করে মারা গেলেন মানুষের মৃত্যুর কি কোনো দাম নেই? একটা তদন্ত কমিটি করুন।