শিরোনাম:

হাসপাতাল থেকে লাফিয়ে পড়ে দুই করোনা রোগীর আত্মহত্যা

করোনা আক্রান্ত দুজন রোগী হাসপাতাল থেকে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার ভারতের গুজরাট রাজ্যের রাজকোট ও ভাবনাগড়ে এ ঘটনা ঘটেছে। গত ১২ দিনে রাজ্যের সৌরাষ্ট্র অঞ্চলে অন্তত আটজন করোনা রোগী আত্মহত্যা করেছেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

রাজকোট সিভিল হাসপাতালের চারতলা থেকে মঙ্গলবার লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেন ৫০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। পেশায় ইলেকট্রিশিয়ান ওই ব্যক্তির করোনা পজিটিভ হয়েছিল। জগা বালগামাদিয়া নামের ওই ব্যক্তি সাইপুর গ্রামের বাসিন্দা। এটা রাজকোট শহর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

পুলিশ বলছে, করোনায় মৃত্যু হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই হয়তো আত্মহত্যা করেছেন তিনি। তবে তিনি কেন এমন চরম পদক্ষেপ নিলেন তা নিশ্চিত হতে আমরা হাসপাতালের স্টাফ এবং বালগামাদিয়ার পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলবো।

বালগামাদিয়ার দুই সন্তান রয়েছে। একজন মেয়ে ও একজন ছেলে। পুলিশ জানিয়েছে, গত সপ্তাহে তিনি রাজকোট সিভিল হাসপাতালের চারতলায় কোভিড ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছিলেন।

এদিকে একইদিন ভাবনাগড় সিভিল হাসপাতালের আরেক করোনা লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেন। ৪৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির নাম অরবিন্দ কালোটরা। ভাবনাগড়ের আনন্দ বিহারের বাসিন্দা হাসপাতালের চারতলা থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেন।

জানা গেছে, পাঁচদিন আগে অরবিন্দের করোনা পজিটিভ। তার পরিস্থিতি খারাপ হয়ে যাওয়ার পর তাকে সিভিল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি হাসপাতালের চারতলায় কোভিড ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন।